শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:৪১ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ:
ডাঃ বিরুর মায়ের মৃত্যুতে নোয়াগাঁও ইউনিয়ন আ’লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির গভীর শোক প্রকাশ স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের সভা সফল করতে আরিফুল আলম অপু’র নেতৃত্বে বিশাল মিছিল না’গঞ্জ জেলা ও মহানগর জাপা’র সম্মেলন প্রস্তুত কমিটিকে খায়রুল বাশার ভূঁইয়া’র শুভেচ্ছা মদনপুর ইউনিয়ন আ’লীগের উদ্যোগে অসহায়দের মাঝে কম্বল বিতরণ করেছেন আরজু ভূঁইয়া স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের সভা সফল করতে ধামগড় ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের নেতৃত্বে বিশাল মিছিল স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের সভা সফল করতে আবুল হাসনাত জনি’র নেতৃত্বে বিশাল মিছিল মদনপুরে এম এ রশিদের উদ্যোগে দুঃস্থ ও শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ বঙ্গবন্ধুকে যারা হত্যা করেছে তারাই বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে হাত দিয়েছে-ভিপি বাদল বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের সভা সফল করতে মুসলিম ও জয়নালের নেতৃত্বে বিশাল মিছিল মদনপুরের দেওয়ানবাগে সড়ক দূর্ঘটনায় ৩জন মারাত্মকভাবে আহত

বাংলাদেশেই ভূঁইয়া একাডেমির সহযোগিতায় ব্যারিস্টার হবার সুযোগ

নিউজ নারায়ণগঞ্জ ৭১ ডট কমঃ
ব্যারিস্টার অ্যাট ল’র সংক্ষিপ্ত রূপ হচ্ছে বার অ্যাট ল। একজন ব্যারিস্টার হিসেবে স্বীকৃত হওয়ার জন্য ৯ মাসের একটি বার প্রফেশনাল ট্রেনিং কোর্স (বিপিটিসি) করতে হয়। উল্লেখ্য, বাংলাদেশের আইনজীবীদের বলা হয় অ্যাডভোকেট। আমেরিকাতে আইনজীবীকে বলা হয় অ্যাটর্নি। তেমনি করে অস্ট্রেলিয়া বা UK এর আইনজীবীকে বলা হয় ব্যারিস্টার। এভাবে বিভিন্ন দেশে আইনজীবীকে বিভিন্ন নামে অভিহিত করা হয়। বাংলাদেশে ব্যারিস্টারকে অত্যন্ত সম্মানের চোখে দেখা হয়।

যোগ্যতাঃ বাংলাদেশে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইনের ওপর অনার্স ও মাস্টার্স করেও কেউ সরাসরি ইংল্যান্ডে প্রফেশনাল ট্রেনিং কোর্সে ভর্তি হতে পারবেন না। অর্থাৎ ব্রিটিশ বিশ্ববিদ্যালয় এবং তাদের অধিভুক্ত কিছু প্রতিষ্ঠান ছাড়া অন্য কোনো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কেউ যদি অনার্স পাস করে তবে তাকে বার প্রফেশনাল ট্রেনিং কোর্সে ভর্তি হতে হলে আবার নতুন করে কোনো ব্রিটিশ বিশ্ববিদ্যালয় বা স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান থেকে এলএলবি বা এলএলএম পাস করতে হবে।

আপনি যদি ব্যারিস্টার হতে চান তাহলে আপনাকে পড়াশোনার দুটি ধাপ সম্পূর্ণ করতে হবে। এসএসসি, এইচএসসি, অনার্স, মাস্টার্স যে কোনো পর্যায়ের শিক্ষার্থীই ব্যারিস্টারি পড়ার এই ধাপ দুটি করতে পারবেন। প্রথম ধাপটি হচ্ছে একাডেমিক। মূলত এখানে আপনাকে বার-এট-ল’র একাডেমিক স্টেজটি সম্পূর্ণ করতে হবে। সময় লাগবে অবস্থাভেদে ২-৩ বছর। অন্যদিকে যারা অনার্স/মাস্টার্স পাস তাদের একটু কম সময় লাগবে। কারণ, ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন তাদের তিনটা বিষয় লাঘব করে দেবে। এক্ষেত্রে ৯টি বিষয় সম্পন্ন করলেই ওই শিক্ষার্থী একাডেমিক স্টেজ শেষ করতে পারবেন। ব্যারিস্টারি পড়ার দ্বিতীয় ধাপটি হচ্ছে বার প্রফেশনাল ট্রেনিং কোর্স। এই কোর্সটি শেষ করতে সময় লাগবে ৯ মাস এবং এই ৯ মাস শিক্ষার্থীকে লন্ডনে অবস্থান করতে হবে। এক্ষেত্রে যাবতীয় সহযোগিতা প্রদান করবে ভূঁইয়া একাডেমি। প্রথম ধাপটি সম্পন্ন করে কোনো শিক্ষার্থী যদি ভকেশনাল কোর্স করার জন্য লন্ডনে নাও যান, তবুও সে বাংলাদেশের কোর্টে প্রাকটিস করার যোগ্যতা অর্জন করতে পারবেন। পাশাপাশি বিসিএস ও জুডিশিয়াল সার্ভিস পরীক্ষা দিতে পারবেন।

দেশে বসেই ইংল্যান্ডের ডিগ্রিঃ আপনি ব্যারিস্টারি পড়তে চান। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশেই ভূঁইয়া একাডেমির সহযোগিতায় বার এ্যাট ল’ পড়ার সুযোগ রয়েছে। এইচএসসি বা সমমানের ডিগ্রিধারী যে কেউ ব্রিটিশ বিশ্ববিদ্যালয় স্বীকৃত তিন বছর মেয়াদি এলএলবি অনার্স কোর্সে ভর্তি হতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে এসএসসি ও এইচএসসি মিলে জিপিও-৫ থাকতে হবে। ভর্তির ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট কোনো বয়সসীমা নেই। শিক্ষার্থীদের জন্য ইংল্যান্ডের ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন থেকে সকল বই প্রদান করা হবে। শিক্ষার্থীরা ইংল্যান্ডের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে অভিন্ন প্রশ্নপত্রে ও একই সময়ে পরীক্ষায় অংশ নিয়ে থাকেন। পরীক্ষা নেয়া হয় ব্রিটিশ কাউন্সিলের মাধ্যমে। ইংল্যান্ডেই এসব উত্তরপত্র মূল্যায়ন করা হয়। এভাবে দেশে বসেই ইংল্যান্ডের ডিগ্রি পেতে পারেন। এলএলবি করার পর ইংল্যান্ডে সরাসরি বার ভোকেশনাল কোর্সে ভর্তি হওয়া যাবে।

এলএলবি পাসের পরঃ এলএলবি পাস করার পর ইংল্যান্ডে সরাসরি বার ভোকেশনাল কোর্সে ভর্তি হওয়া যায়। ইংল্যান্ডের ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন ও ইউনিভার্সিটি অব নর্দমব্রিয়ায় দূরশিণ পদ্ধতিতে এই ডিগ্রি নেয়ার সুযোগ রয়েছে। তবে বার প্রফেশনাল ট্রেনিং কোর্সের জন্য ইংল্যান্ডে যেতেই হবে।

কোথায় পড়বেনঃ বার অ্যাট ল কোর্সটি ইংল্যান্ডের চারটি ইন’স-এর যেকোনো একটি থেকে করতে হয়। অর্থাৎ লিন্কনস্ ইন, গ্রেইস ইন, ইনার টেম্পল ও মিডল টেম্পল এই চারটি ইন’স এর মধ্যে যেকোনো একটি আপনাকে বেছে নিতে হবে। সনদ ইন থেকে দেওয়া হলেও কোনো একটি ব্রিটিশ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে পড়াশোনা করতে হয়। ইন’স অব কোর্ট, স্কুল অব ল, কলেজ অব ল, বিপিপি ল স্কুল, নটিংহ্যাম, নর্দামব্রিয়ায়, ব্রিস্টল, কার্ডিফ, ম্যানচেস্টার মেট্রোপলিটন এই ৯টি প্রতিষ্ঠানে বার অ্যাট ল করা যায়। এর যেকোনো একটিতে পড়তে পারেন।

ক্রেডিট ট্রান্সফারঃ 1st year পাস করার পর ক্রেডিট ট্রান্সফার করে UK তে চলে যেতে পারবেন। এক্ষেত্রে যাবতীয় সহযোগিতা প্রদান করবে ভূঁইয়া একাডেমি।

ভূঁইয়া একাডেমিঃ দেশের প্রথম নারী ব্যারিস্টার ডক্টর রাবিয়া ভূঁইয়া ১৯৮৯ সালে প্রথম বৃটিশ সিলেবাসের আদলে এলএলবি কোর্স (অনার্স) এর জন্য ভূঁইয়া একাডেমি প্রতিষ্ঠা করেন। এ পর্যন্ত এই প্রতিষ্ঠান থেকে সাড়ে ৬ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করে আইনজীবী হিসেবে কাজ করছেন। পাঁচশ’র বেশি শিক্ষার্থী বার এট ল অর্জন করে আইনাঙ্গনসহ রাষ্ট্রের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে কাজ করছেন।

সুযোগ-সুবিধাঃ ১. ভূঁইয়া একাডেমি ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন কর্তৃক স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান। ২. সকল ডিগ্রিই ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন কর্তৃক প্রদান করা হয়। ৩. বাংলাদেশ এবং ইউকে’র সমন্বিত শিক্ষা ব্যবস্থা। ৪. আন্তরিকতার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে ব্যারিস্টারগণের লেকচারঃ প্রতি ১ ঘণ্টা লেকচারের পর আধঘণ্টা শিক্ষার্থীদের প্রশ্নের উত্তর প্রদান। ৫. প্রতি মাসেই শিক্ষার্থীদের জন্য প্রস্তুতিমূলক পরীক্ষার ব্যবস্থা। ৬. প্রায় ৬০০০ বই সমৃদ্ধ লাইব্রেরি, ওয়াই ফাই সুবিধা, কম্পিউটার ল্যাব, ক্যাফেটেরিয়া, ইংরেজি ভাষার জন্য বিশেষ ক্লাস, সেমিনার আয়োজন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, বিকল্প ক্লাসের ব্যবস্থা, মাল্টিমিডিয়ার ব্যবস্থা ইত্যাদি। ৭. University of London এর website থেকে ভূঁইয়া একাডেমি’র Recognition status দেখে নিতে পারেন। তাছাড়া বিস্তারিত জানতে নিম্নোক্ত ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেনঃ www.londoninternational.ac.uk

যোগাযোগঃ ৪/১/এ, সোবহানবাগ, মিরপুর রোড, ঢাকা। মোবাইলঃ +৮৮০১৭১৯১০৪১৭২, +৮৮০১৭১৩০৩৯৯৭০, +৮৮০১৭৫৫৫৫৭২৫২, +৮৮০১৭৩১৩৩৩৫১১, ফোন: +৮৮ ০২ ৫৮১৫১৮৭৮ +৮৮ ০২ ৫৮১৫১৮৯৪ +৮৮ ০২ ৫৮১৫১৮৯৮ ##.

নিউজটি শেয়ার করুন:

আপনার মতামত কমেন্টস করুন


© All rights reserved © 2019 Newsnarayanganj71
Design & Developed BY N Host BD