বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ১০:২৭ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ:
সর্বস্তরের সবাইকে মাহে রমজানের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন মাহাবুব পারভেজ সর্বস্তরের সবাইকে মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আনোয়ার হোসেন আনু শামীম ওসমান ও ডাঃ বিরুর পক্ষ থেকে মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নাসির উদ্দিন কাঁচপুর ইউপি’র ১নং ওয়ার্ডবাসীকে মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মোঃ উজ্জল ধামগড় ইউনিয়নবাসীকে মাহে রমজানের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন শরীফ হোসেন আসুন মাহে রমজানের পবিত্রতা রক্ষা করি ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি-শাহাদাৎ হোসেন আসুন মাহে রমজানের পবিত্রতা রক্ষা করি ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি-মোঃ শফিউল্লাহ মদনপুর ইউপি’র ২নং ওয়ার্ডবাসীকে মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অহিদ ভূঁইয়া আসুন মাহে রমজানের পবিত্রতা রক্ষা করি ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি-সামছুল আলম (নয়ন) সনমান্দী ইউনিয়নবাসীকে মাহে রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নজরুল ইসলাম

বন্দরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছোট বোনের স্বামীর হাতে বড় বোন যখমের অভিযোগ

আব্দুস সালাম মিন্টুঃ

ঘটনাটি ঘটে গত রোববার ২৮-০৩-২১ইং নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানাধীন সোনাকান্দা এলাকায়,ঘটনা সুত্রে জানা গেছে ছোট বোন ও তার পাষণ্ড স্বামীর মিরাজ দেশিয় অস্ত্রের আঘাতে বড় বোন কনিকা বেগম(২৫)  মারাত্মকভাবে  আহত হওয়ার ঘটনা পাওয়া গেছে! গত রোববার বন্দর থানাধীন সোনাকান্দা এলাকয় এ  সন্ত্রাসী  হামলার ঘটনা ঘটে, সন্ত্রাসী হামলার পর কনিকা বেগম আহত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়লে এক পর্যায়ে স্থানীয় এলাকাবাসী দ্রুত  ছুটে এসে  বড় বোন কনিকা বেগম অবস্থায় উদ্ধার করে বন্ধর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়া ভর্তি  করেন,

এ ব্যাপারে  আহত কনিকা বেগমের মা রাশিদা বেগম বাদী হয়ে  তার ছোট মেয়ে ও তার সন্ত্রাসী স্বামী মিরাজকে আসামি ও  অজ্ঞাত ৪/৫ জনকে আসামী করে ঘটনার ঐদিন  বিকেলে বন্দর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন,ঘটনার অভিযোগ পেয়ে বন্দর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন,

বিশেষ করে জানা গেছে গত দেড় বছর পূর্বে বন্দর  থানাধীন সোনাকান্দা  এলাকার নূর হোসেন মৃধার ছেলে মিরাজ মিয়ার একেই এলাকার সোনাকান্দা বড় মসজিদ সংলগ্ন এলাকার ইব্রাহিম মিয়ার মেয়ে লামিয়া কে ,উভয়পক্ষের পরিবারের অমতে প্রেম করে বিয়ে করে, বিষয়টি উভয়পক্ষের পরিবার মেনে না নেয়ায় গত রোববার দুপুরে  রাশিদা বেগম  এর ছোট মেয়ে লামিয়ার স্বামী মিরাজ  ক্ষিপ্ত হয়ে ইব্রাহিম নিয়ার বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা চালায় এবং তাহার বাড়িঘর ভাঙচুর করে,উক্ত ঘটনার সংবাদ পেয়ে লামিয়ার বড় বোন কনিকা বেগম বাধা প্রদান করিলে ক্ষিপ্ত হয়ে কনিকা বেগম এর উপরে  উপর্যপরি হামলা চালায়, এ সময় লামিয়ার বড় বোন কনিকা বেগম  গুরুত্ব আহত  অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয় জনগণ ছুটে এসে তাকে  আহত অবস্থায় বন্দর বাগবাড়ি সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান, বন্দর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মরত ডাক্তার তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার পরে স্থানীয় একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে চিকিতসা নেওয়ার পর এখন কিছুটা সুস্থ আছেন বলে জানা গেছে,

ঘটনা  সূত্রে আরো জানা গেছে লামিয়ার স্বামী সন্ত্রাসী হামলা চালানোর সময়  কলিকা বেগমের পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে দ্রুত চম্পট দেয়, উক্ত বিষয়ে বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসী  মহোদয় জানিয়েছেন  অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন:

আপনার মতামত কমেন্টস করুন


© All rights reserved © 2019 Newsnarayanganj71
Design & Developed BY N Host BD